Saturday, April 13, 2024
HomeScrollingব্যাংক কর্মকর্তাকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী কন্যা মেয়ের জামাই সহ আটক ৪

ব্যাংক কর্মকর্তাকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী কন্যা মেয়ের জামাই সহ আটক ৪

মৌলভীবাজার সংবাদদাতা।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় শেখ রফিকুল ইসলাম সিদ্দিকী (৬৫) অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শনিবার ভোররাতে উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে ওই লাশ উদ্ধার করা হয়।

রফিকুল ইসলামের বড় ভাই শেখ সিরাজুল ইসলাম সিদ্দিকীসহ অভিযোগ রফিকুলের স্ত্রী এবং কন্যারা তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই সিরাজুল ইসলাম সিদ্দিকী বাদি হয়ে ৬ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ নিহতের স্ত্রী, কন্যা, জামাতাসহ ৪জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভাটেরা ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দা শেখ রফিকুল ইসলাম সিদ্দিকী একটি বেসরকারী ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন। দুই বছর আগে তিনি অবসর নেন। তাঁর ঘরে ৫ মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছেন।

অবসরের পর একমাত্র ছেলে শেখ আমিনুল ইসলাম সিদ্দিকীকে পেনশনের টাকায় আরব আমিরাতে পাঠান। ছেলেকে প্রবাসে পাঠানোর পর পেনশনের অবশিষ্ট টাকার জন্য স্ত্রী মিছফা আক্তার সিদ্দিকা ও মেয়েদের সাথে প্রায়ই ঝগড়াবিবাদ সৃষ্টি হতো।

এনিয়ে শেখ রফিকুল ইসলাম সিদ্দিকীসহ তাঁর পরিবারের সদস্যরা ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম পাখির উপস্থিতিতে একাধিকবার শালিসী বৈঠক হয়। সর্বশেষ শুক্রবার (২৬ মে) রাত ১০টার দিকে পারিবারিক বিরোধের ঘটনায় রফিকুল ইসলামের ভাই সিরাজুল ইসলামসহ স্বজনদের উপস্থিতিতে পারিবারিক শালিসী বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে সবাই চলে যান। পরে রাত দেড়টার দিকে সিরাজুল খবর পেয়ে তাঁর ভাইয়ের বাড়িতে গিয়ে দেখতে পান রফিকুলের লাশ ঘরের বারান্দায় পড়ে আছে। সিরাজুল ইউপি সদস্যর মাধ্যমেপুলিশকে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রফিকুলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করে।

কুলাউড়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুস ছালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এধরণের অভিযোগ পাওয়ার পর আমরা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছি। ও অভিযুক্তদের আটক করা হয়।

 

LN24BD

RELATED ARTICLES
Continue to the category

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments