Sunday, May 26, 2024
HomeScrollingপাবনার মানসিক হাসপাতালে দেখা গেল নোবেলকে

পাবনার মানসিক হাসপাতালে দেখা গেল নোবেলকে

বেশ কয়েক দিন ধরেই সংগীতশিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেলকে ঘিরে চলছে বিতর্ক। নানা কারণে সমালোচিত এই গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছিলেন তিনি পরিবারের পরামর্শে মানসিক চিকিৎসা নেবেন। সেই স্ট্যাটাস দেওয়ার একদিন পার না হতেই নোবেলকে দেখা গেল পাবনার মানসিক হাসপাতালে। সমালোচিত এই সংগীতশিল্পীর সঙ্গে রয়েছেন তার স্ত্রীও। তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ২০ মে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার দিকে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। এতে দেখা গেছে, মানসিক হাসপাতালের চেম্বারে অবস্থান করছেন সস্ত্রীক নোবেল। চেম্বারের পাশেই গ্রিলের ওপাশে বেশ কয়েকজন মানসিক রোগীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন নোবেল। তাদের গেয়ে শোনান জাতীয় সংগীত। যে সংগীত নিয়েও তিনি সমালোচনা করেছেন একটা সময়। ধারণা করা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার তিনি পাবনার এই মানসিক হাসপাতালে যান। তবে সেটি চিকিৎসার জন্য নাকি শুধুই পরিদর্শন- সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে তার চোখের চশমা, কাঁধে ঝোলানো ব্যাগ আর সঙ্গে স্ত্রীকে দেখে এটুকু স্পষ্ট, সাম্প্রতিক সময়ের জটিলতা থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে পুলিশের পরামর্শেই তার এই পাবনা সফর।

এদিকে ১৯ মে বুধবার দুপুরের দিকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সাইবার ক্রাইম ডিভিশন তাকে ডেকেছিল। পরে তিনি ডিএমপির সদর দপ্তরে এসে সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম ইউনিটের পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করেন। এই ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার নাজমুল ইসলাম এক স্ট্যাটাসে বলেন, ‘গায়ক নোবেল ও তার ভেরিফায়েড পেজের আপত্তিকর ও অনভিপ্রেত পোস্ট নিয়ে আমরা ইতিমধ্যে অবগত। বাংলাদেশের প্রচলিত আইন মোতাবেক ও সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের সাথে মতামত, সম্মতি ও পরামর্শক্রমে এই বিষয়ের একটা বিশ্বাসযোগ্য ও স্থায়ী সমাধানের জন্য আমরা আইনের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।’

নোবেল আরেকটি পোস্টে গতকালই জানান, পুলিশের সঙ্গে সাক্ষাতের পর তার মানসিক চিকিৎসা চলছে। ধারণা করা হচ্ছে, সেই সূত্রেই বৃহস্পতিবার (২০ মে) সকাল নাগাদ নোবেল গিয়েছেন পাবনার ওই হাসপাতালে।

২০১৯ সালে ভারতের জি বাংলা টেলিভিশনের রিয়্যালিটি শো ‘সা রে গা মা পা’-তে অংশ নিয়ে আলোচনায় আসা নোবেল প্রথম থেকেই বিতর্কের জন্ম দিয়ে আসছেন। ঈদের আগ দিয়ে নিজের ‘মেহেরবান’ গান প্রকাশের আগে ব্যান্ড লিজেন্ড নগর বাউল জেমস, তাপস, আহম্মেদ হুমায়ুন, ইথুন বাবুকে নিয়ে ফেসবুকে বাজে মন্তব্য করেন তিনি। এছাড়া দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মিথ্যা প্রচারণা চালাতেও দেখা গেছে এই গায়ককে। সর্বশেষ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বাজে মন্তব্য করেন তিনি। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সময় টিভির অনলাইন সংস্করণের এক সাংবাদিককে অপহরণের হুমকি দেন এই সমালোচিত গায়ক। এই কাণ্ডে সময় টিভি কর্তৃপক্ষ সাধারণ ডায়েরি করলে সাংবাদিকদের নিয়ে বিতর্কিত পোস্ট দিয়ে পরে অবশ্য ক্ষমা চান নোবেল। এ ছাড়া ব্যান্ড তারকা জেমসের কাছেও ফেসবুকে ক্ষমা চেয়েছেন নোবেল।

RELATED ARTICLES
Continue to the category

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments