1. sarifhafiz48@gmail.com : livenewsdesk desk : livenewsdesk desk
  2. mehedihasan.mhs078@gmail.com : Arif Molla : Arif Molla
  3. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
  4. livenewsbd24@gmail.com : Mehedi Hasan : Mehedi Hasan
ফকির আলমগীর আর নেই - Livenews24
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১১:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে চাইঃ আইসিটি প্রতিমন্ত্রী মারা গেলেন শীর্ষ পর্যায়ে ফুটবল-ক্রিকেট খেলা একমাত্র স্কটিশ ঈদে তৌসিফ-কেয়া পায়েলের ‘ঝালফ্রাই’ হজে গিয়ে দশ বাংলাদেশির মৃত্যু সৌদি পৌঁছেছেন ৫০ হাজার ২১৮ হজযাত্রী করোনায় আরও ৫ মৃত্যু, শনাক্ত ১৮৯৭ মায়ের ‘না’, সবার মতামত শুনে সিদ্ধান্ত নেবেন ফাইয়াজের বাবা পানি বাড়ছে পদ্মা-যমুনায় সৌদি আরবে হাজিদের নিরাপত্তায় নারী সেনা ২০তম বার্ষিক সম্মেলনে কালকিনি প্রেসক্লাবের কমিটি- সভাপতি দুলাল, সা.সম্পাদক হাকিম মাদারীপুরে গরীব ও অসহায়দের মধ্যে চেক বিতরণ ইউনূস সেন্টারের বিবৃতি ‘শাক দিয়ে মাছ ঢাকা’: তথ্যমন্ত্রী আইনমন্ত্রীর বক্তব্য পুরো সংসদের জন্য লজ্জার: রুমিন নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে কুড়িগ্রামে ফের ক্ষয়-ক্ষতির আশঙ্কা হেলমেটে ক্যামেরা নিয়ে ফিল্ডিং করবেন পোপ

ফকির আলমগীর আর নেই

  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১
  • ৪৫ শেয়ার এবং সংবাদটি পড়েছেন।

অনলাইন ডেস্ক।।

গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর আর নেই। শুক্রবার রাত ১০ টা ৫৬ মিনিটে তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি….রাজিউন)। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে মাশুক আলমগীর।

তার আগে শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে তার হার্ট অ্যাটাক হয় বলে জানিয়েছেন তার ছেলে মাশুক আলমগীর রাজিব। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভেন্টিলেশন সাপোর্টে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

গত ১৪ জুলাই, বুধবার ফকির আলমগীরের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট ‘পজিটিভ’ আসার পর চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে তার জ্বর ও শ্বাসকষ্ট বাড়তে থাকায় রাতে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ফকির আলমগীরের চিকিৎসার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে খোঁজ নেওয়া হয়েছে বলে সেসময় জানান ফকির আলমগীরের স্ত্রী সুরাইয়া আলমগীর।

ষাটের দশক থেকে গণসংগীতের সঙ্গে যুক্ত ফকির আলমগীর। ক্রান্তি শিল্পীগোষ্ঠী ও গণশিল্পীগোষ্ঠীর সদস্য হিসেবে ১৯৬৯-এর গণ-অভ্যুত্থানে অংশ নেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি যোগ দেন স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রে। স্বাধীনতার পর পাশ্চাত্য সংগীতের সঙ্গে দেশজ সুরের মেলবন্ধন ঘটিয়ে বাংলা পপ গানের বিকাশে ভূমিকা রাখেন ৭১ বছর বয়সী এ শিল্পী। সংগীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য সরকার ১৯৯৯ সালে ফকির আলমগীরকে একুশে পদক দেয়।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তার কণ্ঠের বেশ কয়েকটি গান দারুণ জনপ্রিয়তা পায়। এর মধ্যে ‘ও সখিনা’ গানটি এখনো মানুষের মুখে মুখে ফেরে। ১৯৮২ সালের বিটিভির আনন্দমেলা অনুষ্ঠানে গানটি প্রচারের পর দর্শকদের মাঝে সাড়া ফেলে। গানটি লিখেছেন আলতাফ আলী হাসু। কণ্ঠ দেওয়ার পাশাপাশি গানটির সুরও করেছেন ফকির আলমগীর।

ফকির আলমগীর সাংস্কৃতিক সংগঠন ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা, গণসংগীত চর্চার আরেক সংগঠন গণসংগীতশিল্পী পরিষদের সাবেক সভাপতি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর করা ফকির আলমগীর গানের পাশাপাশি নিয়মিত লেখালেখিও করেন। ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ও বিজয়ের গান’, ‘গণসংগীতের অতীত ও বর্তমান’, ‘আমার কথা’, ‘যারা আছেন হৃদয় পটে’সহ বেশ কয়েকটি বই প্রকাশ হয়েছে তার।

আপনার পছন্দের লিংকের মাধ্যমে সংবাদটি শেয়ার করুন, আমাদের সাথেই থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021
Design & Development By : JM IT SOLUTION