1. sarifhafiz48@gmail.com : livenewsdesk desk : livenewsdesk desk
  2. mehedihasan.mhs078@gmail.com : Arif Molla : Arif Molla
  3. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
  4. livenewsbd24@gmail.com : Mehedi Hasan : Mehedi Hasan
কুষ্টিয়ায় দেবর-ভাবির পরকীয়া সম্পর্কে যাবদজীবন জেল - Livenews24
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৩:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জামালপুরের শ্রীরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ তলা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন দুর্নীতির বিরুদ্ধে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করার আহ্বান… জামালপুরে দুদকের তদন্ত কমিশনার যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসেছি সেটা বাস্তবায়ন করতে চাই: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে চাইঃ আইসিটি প্রতিমন্ত্রী মারা গেলেন শীর্ষ পর্যায়ে ফুটবল-ক্রিকেট খেলা একমাত্র স্কটিশ ঈদে তৌসিফ-কেয়া পায়েলের ‘ঝালফ্রাই’ হজে গিয়ে দশ বাংলাদেশির মৃত্যু সৌদি পৌঁছেছেন ৫০ হাজার ২১৮ হজযাত্রী করোনায় আরও ৫ মৃত্যু, শনাক্ত ১৮৯৭ মায়ের ‘না’, সবার মতামত শুনে সিদ্ধান্ত নেবেন ফাইয়াজের বাবা পানি বাড়ছে পদ্মা-যমুনায় সৌদি আরবে হাজিদের নিরাপত্তায় নারী সেনা ২০তম বার্ষিক সম্মেলনে কালকিনি প্রেসক্লাবের কমিটি- সভাপতি দুলাল, সা.সম্পাদক হাকিম মাদারীপুরে গরীব ও অসহায়দের মধ্যে চেক বিতরণ ইউনূস সেন্টারের বিবৃতি ‘শাক দিয়ে মাছ ঢাকা’: তথ্যমন্ত্রী

কুষ্টিয়ায় দেবর-ভাবির পরকীয়া সম্পর্কে যাবদজীবন জেল

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১০৮ শেয়ার এবং সংবাদটি পড়েছেন।

হুমায়ূন চোকদার কুষ্টিয়া সংবাদদাতাঃ কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জের ধরে রনি ইসলাম নামে এক যুবককে হত্যার দায়ে দুইজনের যাবদজীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদেরকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে।
সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- দৌলতপুর উপজেলার চিলমারী ইউনিয়নের হায়দারের চর গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে সজিব হোসেন (২৫) এবং হোগলবাড়িয়া ইউনিয়নের তাজপুর গ্রামের আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী সীমা খাতুন (৩৮)। দণ্ডপ্রাপ্তরা সম্পর্কে দেবর-ভাবি।

আদালত সূত্রে জানা যায়, তাজপুর গ্রামের নাহারুল ইসলামের ছেলে রনি ইসলাম ২০১৮ সালের ২৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সোনাইকুন্ডি বাজারে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন। এরপর তিনি আর বাড়ি ফেরেননি।
এরপর ২০১৮ সালের ১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে চিলমারী ইউনিয়নের উদয়নগর চরে বালুর ভেতর পুঁতে রাখা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে দৌলতপুর থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় হত্যা মামলা হলে দৌলতপুর থানা পুলিশের তদন্তে হত্যার রহস্য বেরিয়ে আসে। একই গ্রামের প্রবাসী আফাজ উদ্দিনের স্ত্রী সীমা খাতুনের সঙ্গে রনি ইসলামের পরকীয়া সম্পর্ক হয়। পরকীয়া সম্পর্কের বিষয়টি জানাজানি হলে সীমা খাতুন কৌশলে রনি ইসলামকে উদয়নগর চরে ডেকে নিয়ে দেবর সজিব হোসেনের সহায়তায় তাকে হত্যা করে মরদেহ চরের বালুর ভেতর পুঁতে রাখেন।
২০১৯ সালের ১৫ জানুয়ারি এ হত্যা মামলার চার্জ গঠন করা হয়। ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালতের বিচারক আজ এ রায় দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী জানান, রনি ইসলাম হত্যা মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। ফলে আদালতের বিচারক দেবর সজিব হোসেন ও ভাবি সীমা খাতুনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়ছেন।

LN/Arif

আপনার পছন্দের লিংকের মাধ্যমে সংবাদটি শেয়ার করুন, আমাদের সাথেই থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ দেখুন
© All rights reserved © 2021
Design & Development By : JM IT SOLUTION